{সহজে} জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম।

যে কারোর জীবনে জন্ম নিবন্ধন একটি গুরুত্বপূর্ণ নথি। চাকুরি, পড়ালেখা, ভিসা পাসপোর্ট সহ প্রায় সকল ক্ষেত্রেই এটির প্রয়োজন হয়ে থাকে। তাই এটিতে থাকা সকল তথ্য গুলো সঠিক রয়েছে কিনা তা দেখার জন্য অথবা যদি কোন কারণে খুজে পাওয়া না যায় সেক্ষেত্রে সহজেই এটিকে আবার রিকভার করা যায় সে জন্য জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম টি অবশ্যই সকলের জানা থাকা প্রয়োজন। 

জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার অনেকগুলো পদ্ধতি রয়েছে তবে এর মধ্যে সবচেয়ে সহজ উপায় হলো জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়মটি। আর বর্তমান সময়ে প্রায় সকলের জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি হওয়াতে জন্ম নিবন্ধন চেক করার পদ্ধতিটি অনেকটাই সহজ হয়ে গিয়েছে। 

আমাদের আজকের এই টিউটোরিয়ালে আমরা ২টি ভিন্ন পদ্ধতিতে সুধুমাত্র জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন চেক করার পদ্ধতিটি বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করবো। পাশাপাশি আরো বেশ কিছু তথ্য আপনাদের কাছে শেয়ার করবো যা পরবর্তী সময়ে আপনাদের বেশ সাহায্য করবে।

নিয়ম ১ঃ জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম 

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার জন্য সর্ব প্রথম আপনার জন্ম নিবন্ধন টি ১৭ ডিজিটের ডিজিটাল বা অনলাইন জন্ম নিবন্ধন হতে হবে। পুরাতন হাতের লেখার জন্ম নিবন্ধন হলে তাহলে এই পদ্ধতিতে চেক করতে পারবেন না, সেক্ষেত্রে আপনাকে আমাদের নিয়মঃ ২ অনুসরণ করতে হবে।

যদি অনলাইন জন্ম নিবন্ধন কপি হয়, তাহলে প্রথমে আপনাকে everify.bdris.gov.bd লিংকে যেতে হবে, সেখান থেকে ১৭ ডিজিটের নাম্বার এবং জন্ম তারিখ টি সম্পূর্ণ দেয়ার পর নিচে একটি গাণিতিক ক্যাপচা দেখতে পারবেন। সেটিকে পূরণ করে search ক্লিক করুন এরপরে আপনার জন্ম নিবন্ধন টি সঠিক কিনা তা দেখতে পারবেন। 

সহজে বুঝার জন্য জন্ম নিবন্ধন চেক করার পদ্ধতিটি আমরা ধাপে ধাপে নিচে আলোচনা করেছি। চলুন দেখে নেয়া যাক।

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম 

ধাপ ১ঃ প্রথমে জন্ম নিবন্ধন চেক করার জন্য এখানে ক্লিক করুন, এরপরে আপনি উপরের মতো একটি পেজ দেখতে পারবেন।

ধাপ ২ঃ এখানে প্রথম বক্সে অর্থাৎ Birth Registration Number বক্সে আপনার জন্ম নিবন্ধন নাম্বার টি দিতে হবে, এরপরের বক্সে আপনার Date of Birth এ আপনার জন্ম তারিখটি Year-Months-Date (উদাহরণঃ 1999-07-20) ফরমেটে দিন। অবশ্যই নিচে দেখানো ছবিটির মত করে সাল, মাস, এবং দিনের মাঝখানে (-) হাইপেন ব্যবহার করুন। 

online-birth-certificate-check

ধাপ ৩ঃ এবার নিচে একটি গানিতিক ক্যাপচা দেখতে পারবেন, যেটি মূলত দেয়া হয়েছে আপনি রোবট নাকি মানুষ তা যাচাই করার জন্য। এখানে যেকোন দুইটি সংখ্যার যোগ বা বিয়োগ করতে বলবে, আপনি সেটির সমাধান বের করে ছবির মত করে নিচের The Answer Is এর খালি বক্সটিতে সংখ্যাটি দিয়ে পূরন করতে হবে। এরপরে সর্বশেষ Search এ ক্লিক করতে হবে। 

যদি আপনার দেয়া সকল তথ্য সঠিক থাকে এবং আপনার জন্ম নিবন্ধন টিও সঠিক হয় তাহলে এই পেজে আপনার জন্ম নিবন্ধনের সকল তথ্য গুলো দেখতে পারবেন। আর এভাবেই সহজে আপনার জন্ম নিবন্ধন টি যাচাই করতে পারবেন। আপনার অনলাইন জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড কিভাবে করবেন তা জানার জন্য এখানে ক্লিক করুন

নিয়ম ২ঃ শুধুমাত্র জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই 

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম 
জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম 

যদি আপনার জন্ম নিবন্ধনটি হারিয়ে ফেলেন, তবে সেটিতে থাকা আপনার জন্ম তারিখ টি এবং আপনার নাম সঠিক ভাবে মনে থাকে তাহলে আপনি শুধুমাত্র জন্ম তারিখ দিয়েই আপনার জন্ম নিবন্ধন টি উদ্ধার করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনাকে অনলাইনের কোন কিছুই করতে হবেনা। সরাসরি আপনার নিকটস্থ ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা বা আপনার এলাকার সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর অফিসে যেতে হবে, এবং সেখানে আপনাকে সব কিছু খুলে বলতে হবে। 

পাশাপাশি নিচের স্টেপস গুলো অবশ্যই যাওয়ার পূর্বে মাথার রাখতে হবে

  • যাওয়ার সময়ে আপনার বাবা এবং মায়ের জন্ম নিবন্ধন এবং ভোটার আইডি কার্ড সাথে করে নিয়ে যাবেন।
  • সেখানে আপনার সকল বিষয় গুলো ডিটেইলস এ বলবেন এবং আপনার সাথে করে নিয়ে যাওয়া আপনার বাবা, মায়ের ডকুমেন্টস তথ্য গুলো তাদের কাছে হস্তান্তর করবেন।
  • অফিসে থাকা কর্মকতা আপনার নাম, এবং জন্ম তারিখ জিগ্যেস করলে সেগুলোর সঠিক উত্তর দিন। এরপর তিনি তাদের ডেটাবেজ থেকে আপনার জন্ম নিবন্ধন টি বের করে দিবেন।

কিভাবে নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা যায়?

অনেকে রয়েছেন যারা তাদের জন্ম নিবন্ধনের নম্বার বা তেমন কোন তথ্য ই জানেন না, তারাও চাইলে তাদের জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন। এক্ষেত্রে নিয়ম ২ এর মত আপনাকে আপনার ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা বা আপনার এলাকার সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর অফিসে যোগাযোগ করতে হবে। 

সেখানে তাদের ডেটাবেজ থেকে তারা আপনার নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে দিতে পারবেন। সাধারণত অনলাইনে সুধু মাত্র নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা যায় না। 

শেষ কথাঃ

আমাদের সকলের ভোটার আইডি কার্ড, জন্ম নিবন্ধন এই ধরণের আরো কিছু ডকুমেন্টস রয়েছে যা অনেকটাই গুরুত্বপূর্ণ এবং আমাদের জীবনের প্রত্যেকটি স্তরে এগুলোর প্রয়োজন হয়ে থাকে। তাই এই সবগুলো ডকুমেন্টস ফটোকপি করে আলাদা এক যায়গায় অবশ্যই রাখবেন পাশাপাশি আসল ডকুমেন্টস গুলোকেও আলাদা একটি নিরাপদ যায়গায় রাখবেন যাতে করে হারিয়ে না যায় বা কোন পোকামাকড়ের আক্রমণে নষ্ট হয়ে না যায়। 

আর যদি হারিয়ে যায় বা কোন কারনে সেটিকে আর না খুজে পান তাহলে অবশ্যই আমাদের দেখানো জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম অনুসরণ করে সেটিকে আবারও রিকোভার করুন।

আরও পড়ুনঃ

Sharing is Caring: