আপনার NID দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন আছেঃ সহজেই জেনে নিন

এটি আমরা সকলেই জানি একজনের NID দিয়ে অন্যজনের সিম রেজিস্ট্রেশন করলে এতে পরবর্তী সময়ে অনেক ঝামেলায় পরতে হয়। বিশেষ করে বর্তমান সময়ে যেভাবে ক্রাইম ঘটছে, এতে করে সামান্য এইরকম একটি ভুল আপনাকে অনেকটাই বড় ধরণের বিপদে এবং ভোগান্তিতে ফেলতে পারে। 

তাই আপনার বা আমার নামে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন আছে তা জেনে রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। মূলত এই বিষয় নিয়ে আমাদের আজকের এই গাইড টি সাজানো হয়েছে, এখানে আমরা অনেকটাই বিস্তারিত ভাবে NID দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন আছে তা যাচাই করার সকল পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করেছি। 

তো চলুন সময় নষ্ট না করে আমাদের টিউটোরিয়াল টি শুরু করা যাক।

NID দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন আছে যাচাই করার নিয়ম।

বাংলাদেশে সর্বপ্রথম বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম রেজিস্ট্রেশন করার পদ্ধতি চালু হয় ২০১৫ সালের ১৬ই ডিসেম্বর থেকে। এবং একটি এনআইডি কার্ড দিয়ে একজন ব্যবহারকারী সর্বোচ্চ ১৫ টি পর্যন্ত সিম রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে। তাই আপনার নামে কয়টি সিম বর্তমানে রেজিস্ট্রেশন রয়েছে তা পূর্বেই আপনার জেনে রাখা দরকার, যাতে পরবর্তী সময়ে সিম রেজিস্ট্রেশন এর সময় আপনার সিম রেজিস্ট্রেশন লিমিট শেষ না হয়ে যায়।

আপনি রবি, গ্রামীণ, বাংলালিংক, এয়ারটেল কিংবা টেলিটক যে অপারেটরেই সিম ব্যবহার করেন না কেন, সিম নিবন্ধন যাচাই করার উপায় সব অপারেটরের ক্ষেএেই একই। তাই এটি নিয়ে চিন্তিত হওয়ার প্রয়োজন নেই।

আমার নামে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন আছে

NID কার্ড দিয়ে সিম যাচাই করার জন্য আপনাকে যা যা করতে হবেঃ

  • প্রথমে আপনার ফোন থেকে *16001# ডায়েল করতে হবে।
  • এরপরে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের শেষের ৪টি ডিজিট টি বক্সে সাবমিট করতে হবে। ডিজিট গুলো যেন সঠিক হয় সে জন্য আপনার NID কার্ড দেখে উঠিয়ে সাবমিট করে দিন।
  • এরপরে ফিরতি ম্যাসেজে আপনাকে জানিয়ে দেয়া হবে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা আছে সেটি।

তবে এখানে একটি জিনিস আপনার জেনে রাখা ভালো, যেমন প্রাইভেসির জন্য এখানে আপনার সম্পূর্ণ ফোন নাম্বার টি দেখাবেনা। অর্থাৎ ফিরতি ম্যাসেজে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র দ্বারা যে কয়েকটি সিম রেজিস্ট্রেশন রয়েছে তার আংশিক অংশ আপনাকে দেখানো হবে,

অনেকটা +88018*****018 এইরকম।

how many sim card registered in my nid

সিম নাম্বার দিয়ে NID কার্ড চেক

অনেক সময় অনেকে রয়েছেন যারা তাদের সিম কার আইডি কার্ড দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা রয়েছে তা জানেন না। সেক্ষেএে সবচেয়ে সহজ উপায় হলো আপনার সিম টি যেই অপারেটর, আপনার নিকটস্থ সেই অপারেটরের কাস্টমার কেয়ার এর কাছে আপনাকে যেতে হবে এবং তার কাছে গিয়ে আপনার সিম নম্বর টি দিয়ে সেটির তথ্য আপনাকে জানতে হবে।

অনলাইনে SIM রেজিস্ট্রেশন চেক করার উপায়

আপনার ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন আছে তা যাচাই করার জন্য আপনাকে কোন অপারেটর সাথে যোগাযোগ বা অন্য কোথাও যাবার প্রয়োজন নেই। অথবা প্রয়োজন নেই স্মার্টফোন বা কম্পিউটার অথবা ইন্টারনেট সংযোগ। 

আপনি সহজেই *16001# ডায়েল করে যেকোন ফোন বা সিম অপারেটর থেকেই জানতে পারবেন আপনার ভোটার আইডি কার্ডে রেজিস্টার করা সকল সিমের আংশিক নম্বর এবং কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন আছে তার সংখ্যা।

সহজেই সিম রেজিস্ট্রেশন বাতিল করার নিয়ম

আপনার ভোটার আইডি কার্ড ব্যবহার করে কেউ যদি তার সিম রেজিস্ট্রেশন করে থাকে, তাহলে এটি একদিকে যেমন আপনার জন্য বিপদজনক, তেমনি আপনার ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে সিম রেজিস্ট্রেশন এর যেই ১৫টি কোটা সেটিও ফিলাপ হয়ে যাচ্ছে। 

তাই আপনার ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা আছে তা যাচাই করার পর, যেগুলো আপনার সিম না, সেগুলোর রেজিস্ট্রেশন বাতিল করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। 

এক্ষেএে সিম রেজিস্ট্রেশন বাতিল করার জন্য, প্রথমে আপনাকে অপ্রয়োজনীয় নম্বর গুলোর লিস্ট করে নিতে হবে। এরপরে সেগুলোর লিস্ট নিয়ে আপনার নিকটস্থ সিম অপারেটরের কাস্টমার কেয়ারে গিয়ে সেগুলোর লিস্ট বাতিলের জন্য আবেদন করতে হবে।

সর্বশেষ

আপনার NID দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন আছে তা যাচাইয়ের পর আপনার সর্বপ্রথম কাজ হলো, যে সিম গুলো আপনার না, সেগুলোর সিম রেজিস্ট্রেশন বাতিল করা। কারণ যেটি আমরা পূর্বেও বলেছিলাম, অপরিচিত সিম রেজিস্ট্রেশন থাকার ফলে এটি পরবর্তী সময়ে আপনার সবচেয়ে বড় ভোগান্তির কারণ হতে পারে। আশাকরি আমাদের এনআইডি দিয়ে সিম রেজিস্ট্রেশন যাচাই করার পদ্ধতি মাধ্যমে আপনি সহজেই সকল কিছু বুঝতে পেরেছেন। 

আপনি আমাদের ব্লগের অন্যান্য গাইড গুলোও পড়তে পারেন, যা আপনাকে আরো অন্যান্য বিষয়ে জানতে সাহায্য করবে।

আরও পড়ুনঃ

Sharing is Caring: